কোহলির চেয়ে বেশি বেতন রুট–আর্চারদের?

কোহলির চেয়ে বেশি বেতন রুট–আর্চারদের?

এই তো গত বছর একমাত্র ভারতীয় হিসাবে ফোর্বসের শীর্ষ ১০০ জন ধনী অ্যাথলেটের তালিকায় নাম এসেছে বিরাট কোহলির। বিশ্ব ক্রিকেটের অন্যতম বেশি বেতনের খেলোয়াড়ও যে তিনি, এ বিষয়ে কারও সন্দেহ থাকার কথা নয়। ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের কেন্দ্রীয় চুক্তিতে ‘এ প্লাস’ গ্রেডে থাকা কোহলির বার্ষিক বেতন ৭ কোটি রুপি। কিন্তু বিশাল অঙ্কের এই বেতন নিয়েও কোহলি কিন্তু আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে বিশ্বের সর্বোচ্চ বেতনের ক্রিকেটার নন।

ভারতের অধিনায়ক বিরাট কোহলি।

virat kohli
ভারতের অধিনায়ক বিরাট কোহলি।

কোহলিকে ছাড়িয়ে ২০২০–২১ মৌসুমের জন্য বিশ্বের সবচেয়ে বেশি বেতনের ক্রিকেটার ইংল্যান্ডের জো রুট–জফরা আর্চাররা। দ্য ক্রিকেটারডটকমের তথ্য অনুযায়ী ভারতের কেন্দ্রীয় চুক্তিতে এ প্লাস গ্রেডে থাকা খেলোয়াড়দের বার্ষিক বেতন সাত কোটি রুপি। কোহলির সঙ্গে বছরে এই পরিমাণ বেতন পাচ্ছেন রোহিত শর্মা–যশপ্রীত বুমরারাও। ভারতের ক্রিকেটে কেন্দ্রীয় চুক্তিতে এ প্লাস গ্রেড চালু হয়েছে ২০১৮ সালে। ২০২০–২১ মৌসুমের জন্য এই গ্রেডে থাকা ক্রিকেটারদের বেতন সাত কোটি রুপি করা হয়েছে।

ইংল্যান্ডের টেস্ট অধিনায়ক জো রুট।

ইংল্যান্ডের টেস্ট অধিনায়ক জো রুট।

দ্য ক্রিকেটারডটকমেরই তথ্য অনুযায়ী, ইংল্যান্ড অ্যান্ড ওয়েলস ক্রিকেট বোর্ডের (ইসিবি) লাল বলের চুক্তিতে থাকা খেলোয়াড়দের বার্ষিক বেতন সাত লাখ পাউন্ড। ভারতীয় মুদ্রায় যা ৭.২২ কোটি রুপি। সেই হিসাবে কোহলির চেয়ে বেতন বেশি ইসিবির লাল বলের চুক্তিতে থাকা রুট–আর্চারদের। প্রণোদনা আর পুরস্কারের অর্থ ধরলে কোহলি অবশ্য আয়ের দিক থেকে রুট–আর্চারদের চেয়ে অনেক এগিয়েই থাকবেন। তবে শুধু বেতনের বিষয়টি ধরলে রুটরাই এগিয়ে।

কোহলির চেয়ে রুটের বার্ষিক বেতন বেশি!

কোহলির চেয়ে রুটের বার্ষিক বেতন বেশি!

তবে ইসিবির কেন্দ্রীয় চুক্তিতে থাকা সাদা বলের ক্রিকেটারদের বেতন অতটা বেশি নয়। বছরে ১ লাখ ৭০ হাজার পাউন্ড বেতন পান তাঁরা। ভারতীয় মুদ্রায় যা ১.৭৫ কোটি রুপি। এদিক থেকে ভারতের কেন্দ্রীয় চুক্তিতে ‘এ’ গ্রেডে থাকা ক্রিকেটাররা অনেক বেশি বেতনই পাচ্ছেন। তাঁদের বার্ষিক বেতন ৫ কোটি রুপি। আর গ্রেড ‘বি’তে থাকা খেলোয়াড়েরা পান ৩ কোটি রুপি করে। ভারতের কেন্দ্রীয় চুক্তিতে গ্রেড ‘সি’তে থাকা ক্রিকেটারদের বার্ষিক বেতনও ভালোই বলতে হবে—১ কোটি রুপি!


Leave a Reply

Your email address will not be published.